ঘুম থেকে উঠার পর কেন শরীর ব্যথা করে?

News |
ঘুম থেকে উঠার পর শরীর ব্যথা হচ্ছে, কিন্তু কেন? সারাদিন ব্যস্ততার পর রাতে আমরা ঘুমাতে যাই। পরিপূর্ণ ঘুমের পর সকালে দেহ ক্লান্তি কাটিয়ে সারাদিন কাজ করার জন্য প্রস্তুত থাকবে এমনটিই আশা করে সবাই। যদি আপনি লক্ষ্য করেন যে, প্রায় প্রতিদিন অকারণে দেহে এক ধরনের ব্যথা জড়িয়ে আড়ষ্টতা নিয়ে ঘুম থেকে জেগে উঠছেন, তার পিছনে এই কারণগুলো থাকতে পারে- ১। ভালো ঘুমের অভাব আপনি রাতে ৬-৮ ঘণ্টা ঘুমালেও যদি ঘুমের গুণগত মান ভালো না হয়, সেক্ষেত্রে শরীর খারাপের জন্য এটি একটি কারণ হিসেবে দায়ী। এক্ষেত্রে বারংবার ঘুম ভেংগে যাওয়াকে ঘুমের গুণগত মান খারাপ হওয়ার জন্য অনেকাংশে দায়ী করা হয়। আপনি যদি ভালোভাবে না ঘুমান, তাহলে শরীরের কোষ ও টিস্যুগুলো রিপেয়ার হতে পারে না, যার ফলে সকালে শরীর ব্যথা হয় এবং অলসতা কাজ করে। এই কাজগুলো করলে রাতে ঘুম ভালো হবে- নির্দিষ্ট সময়ে প্রতিদিন ঘুমাতে যান,এমনকি ছুটির দিনেও একই রুটিন বজায় রাখুন। আপনার বেডরুমের তাপমাত্রা আরামদায়ক কিনা তা নিশ্চিত করুন। দিনের বেলা ঘুমের সময়ে চোখে উজ্জ্বল আলো বা কড়া রোদের আলো যেন না প্রবেশ করতে পারে, তা নিশ্চিত করতে জানালায় ভারী পর্দা ব্যবহার করুন। আরামের একটি বিছানা পেতে ভালো মানের ম্যাট্রেস ও বালিশ ব্যবহার করুন। ঘুমানোর ছয় ঘন্টা আগে ক্যাফেইন এড়িয়ে চলুন। ভারী খাবার খাওয়ার ২-৩ ঘণ্টা পর পর ঘুমাতে যান। ঘুমানোর এক ঘণ্টা আগে টিভি, মোবাইল বা ল্যাপটপের স্ক্রিন এড়িয়ে চলুন। ক্ষুধার্ত অবস্থায় ঘুমাতে যাবেন না। ২। দীর্ঘস্থায়ী স্ট্রেস অতিরিক্ত কাজ থেকে শুরু করে অত্যাধিক ব্যায়াম- এমন অনেক কারণ রয়েছে যা দীর্ঘদিন ধরে করতে থাকলে মানুষ স্ট্রেসড অনুভব করে। আপনার প্রতিদিন সকালে শরীরের ব্যথা নিয়ে জেগে উঠার এটাও একটি কারণ হতে পারে। আপনি যদি দীর্ঘদিন ধরে স্ট্রেসে থাকেন এবং সারাদিন ধরে টেনশন অনুভব করেন, তবে এটি পেশিতে ব্যথা হওয়ার জন্য কারণ হতে পারে। মানসিক চাপ মোকাবেলা করার উপায় প্রতিদিন ইয়োগা করুন। নিয়মিত এক্সারসাইজ করুন। কোন বিষয়টি আপনাকে মানসিকভাবে চাপে রেখেছে সে সম্পর্কে কারো সাথে পরামর্শ করুন। ক্যাফেইন ও অ্যালকোহল পরিহার করুন। নিয়মিত বাইরের আলো বাতাসে ঘুরে আসুন। ৩। আপনি যথেষ্ট ব্যায়াম করছেন না আপনারা হয়তো জেনে অবাক হবেন যে, ব্যায়ামের অভাব ঘুম থেকে উঠার সময় আপনার শরীরে ব্যথা অনুভব করার কারণ হতে পারে। সপ্তাহে পাঁচ দিন অন্তত ৩০ মিনিটের ইয়োগা বা অন্যান্য শারীরিক ব্যায়াম করার চেষ্টা করুন। ব্যায়াম করা সম্ভব না হলে বাইরে গিয়ে কোথাও যাওয়ার সময় বাস-রিকশা না নিয়ে কিছুটা পথ হেঁটে যেতে পারেন। তাছাড়াও লিফটে না চড়ে সিঁড়ি ব্যবহার করতে পারেন। সবচেয়ে ভালো হয় যদি জিমে গিয়ে ব্যায়াম ক্লাসে যোগদান করতে পারেন। ৪। আপনি খুব বেশি ব্যায়াম করছেন: ব্যায়ামের অভাব যেমন সকালে পেশি ব্যথার কারণ হয়ে থাকে, তেমনি খুব বেশি ব্যায়ামও আপনার ঘুম থেকে উঠার সময় ভয়ঙ্কর পেশি ব্যথার কারণ হতে পারে। আপনি যদি নিয়মিত জিমে যান এবং মাত্রাতিরিক্ত ব্যায়াম করেন, তাহলে ঘুম থেকে উঠার সময় আপনার পুরো শরীরে ব্যথা হতে পারে। আপনার শরীরকে প্রয়োজনীয় বিশ্রামের জন্য সময় দিতে প্রতি সপ্তাহে ন্যূনতম দুইদিন ব্যায়াম করা থেকে বিরত থাকতে হবে। যেসব খাবার শরীর ব্যথার জন্য দায়ী আপনি যদি আপনার শরীরকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহ না করেন তবে এটি শরীরের উপর নেতিবাচকভাবে প্রভাব ফেলবে। পেশিতে ব্যথার জন্য স্যাচুরেটেড ফ্যাট, চিনি, পরিশোধিত কার্বোহাইড্রেট, গম ও অ্যালকোহল আছে এমন খাবার দায়ী। তাই ডায়েটে রাখুন এই খাবারগুলো- তৈলাক্ত মাছ ফল ও শাকসবজি বাদাম ও বীজ মশলা, যেমন: আদা ও হলুদ এটুকুই ছিলো ঘুম থেকে উঠার পর পেশি ব্যথার কারণ নিয়ে আজকের আলোচনা। সুস্থতা নিশ্চিত করতে আপনার দৈনন্দিন রুটিনে একটি ভালো মানের ডায়েট প্ল্যানের পাশাপাশি পরিপূর্ণ ঘুম ও পরিমিত ব্যায়াম নিশ্চিত করুন। কয়েক সপ্তাহের মধ্যে নিজের অবস্থার পার্থক্য লক্ষ্য করতে পারবেন।